1. admin@dailytolper.com : admin :
নোটিশ:
দৈনিক তোলপাড় পত্রিকা থেকে আপনাকে স্বাগতম। তোলপাড় পত্রিকা আপনার আমার সবার। আপনার এলাকার উন্নয়নের ভূমিকা হিসেবে পত্রিকাটির মাধ্যমে আমরা দায়িত্ব নিয়েছি।   এ জন্য বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা-উপজেলা-বিভাগ-কলেজ ক্যাম্পাসসহ গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় সাংবাদিক নিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পত্রিকাটির পর্ষদ।  আগ্রহী হলে আপনিও এক কপি রঙিন ছবিসহ নিম্ন ঠিকানায় সিভি প্রেরণ করে নিয়োমিত সংবাদ পাঠাতে পারেন।   প্রচারে প্রসার, আপনার প্রতিষ্ঠান সারা বিশ্বে প্রচারেরর জন্য বিনামূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন।   বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য যোগাযোগ করুন-০১৭১৯০২৬৭০০, prohaladsaikot@gmail.com

কুড়িগ্রামে ভূমিদস্যুদের অত্যাচার ও নির্যাতন থেকে বাঁচতে সংবাদ সম্মেলন

  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৯ টাইম ভিউ

Visits: 2

আতাউর রহমান বিপ্লব, কুড়িগ্রাম:

ভূমিদস্যুদের অত্যাচার ও নির্যাতন থেকে বাঁচতে কুড়িগ্রামে সংবাদ সম্মেলন করেছে চিলমারী উপজেলার নয়ারহাট ইউনিয়নের গয়নার পটল এলাকার পালিয়ে বেড়ানো ৬টি পরিবারের সদস্যরা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কুড়িগ্রাম টেলিশিভন সংবাদিক ফোরামে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থেকে এসব অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী পরিবারগুলোর সদস্য আবুল হোসেন, নওশাদ আলী, মর্জিনা বেগম ও সাজেদা বেগম।

তারা জানান, তাদের বাড়ি ভিটাসহ ৪ একর জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল পাশর্^বর্তী মোতালেব লাঠিয়াল গংদের সাথে। এরই জের ধরে চলতি বছরের গত ১৯ মে বিকেলে ভূমিদস্যুরা আবুল হোসেনের উপর হামলা চালায়। বিষয়টি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মিমাংসার উদ্যোগ নিলেও ব্যর্থ হওয়ায়র গত ২৭ মে চিলমারীর ঢুষমারা থানায় এজাহার দাখির করা হয়। কিন্তু পুলিশের কোন পদক্ষেপ না থাকায় গত ৩০ সেপ্টেম্বর ভূমিদস্যুরা পুণরায় আবুল হোসেনসহ তাদের ৬ পরিবারের ভিটেমাটি দখলের উদ্দিশ্যে বাড়ি-ঘর ভাংচুর ও লুটপাট চালিয়ে পরিবারগুলোকে বিতারিত করে। তারপর থেকে ভুক্তভোগী পরিবারগুলোর প্রায় ৩০ জন সদস্য প্রাণ নাশের অশংকায় ঘরবাড়ি ছেড়ে পাশর্^বর্তী ইউনিয়ন অষ্টমীর চরে অন্যের বাড়িতে আশ্রয় নিয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন।

এরপর উক্ত পরিবারগুলোকে চিরতরে বিতারিত করতে গত ৪ ডিসেম্বর রাতে ৬ পরিবারের বাড়ি-ঘরে লুটতারাজ ও ভাংচুরের পর অগ্নি সংযোগ করে ভূমিদস্যুরা। এ ঘটনায় আবারো ঢুষমারা থানায় অভিযোগ দিতে গেলে থানা পুলিশ মামলা না নিয়ে আদালতে মামলা দায়েরের পরামর্শ দেন। পরে তারা গত ৬ ডিসেম্বর বিজ্ঞ আমলী আদলতে মোতালেব লাঠিয়াল, শফিউর রহমান, তোতা মিয়া, হামেদ মন্ডলসহ ১৫ জনকে আসামী করে ৬ পরিবারের পক্ষ থেকে আবুল হোসেন বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেন।

সংবাদ সম্মেলনে আবুল হোসেন জানান, পৈত্রিক সুত্রে প্রাপ্ত জমিতে তারা দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছিল। এ অবস্থায় পাশর্^বর্তী ভূমিদস্যুরা উক্ত জমি নিজেদের দাবি করে মামলা-হামলা চালিয়ে আসছে। এক পর্যায়ে তারা বাড়ি-ঘর থেকে বিতারিত করে দেয় এবং বাড়ি-ঘর নিশ্চিহ্ন করে দিতে অগ্নিসংযোগ করে। এ অবস্থায় নিজ বাড়িতে ফিরতে সরকারের সহযোগীতা কামনা করছেন তারা।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved © 2017 তোলপাড়
Customized BY NewsTheme