1. admin@dailytolper.com : admin :
নোটিশ:
দৈনিক তোলপাড় পত্রিকা থেকে আপনাকে স্বাগতম। তোলপাড় পত্রিকা আপনার আমার সবার। আপনার এলাকার উন্নয়নের ভূমিকা হিসেবে পত্রিকাটির মাধ্যমে আমরা দায়িত্ব নিয়েছি।   এ জন্য বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা-উপজেলা-বিভাগ-কলেজ ক্যাম্পাসসহ গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় সাংবাদিক নিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পত্রিকাটির পর্ষদ।  আগ্রহী হলে আপনিও এক কপি রঙিন ছবিসহ নিম্ন ঠিকানায় সিভি প্রেরণ করে নিয়োমিত সংবাদ পাঠাতে পারেন।   প্রচারে প্রসার, আপনার প্রতিষ্ঠান সারা বিশ্বে প্রচারেরর জন্য বিনামূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন।   বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য যোগাযোগ করুন-০১৭১৯০২৬৭০০, prohaladsaikot@gmail.com

থেতরাই ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও শ্লীলতাহানির অভিযোগে মামলা

  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ৬ এপ্রিল, ২০২৩
  • ৫১ টাইম ভিউ

Visits: 9

Ulipur News:

কুড়িগ্রামের উলিপুরে ফেরও থেতরাই ইউপি চেয়ারম্যান আতাউর রহমানের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, মারপিট ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ দায়ের করে আদালতে মামলা করেছে এক ভুক্তভোগী নারী।ওই ইউনিয়নের দড়ি কিশোরপুর গ্রামের সাহিনা খাতুন সোমবার (৩ মার্চ) বাদী হয়ে এ মামলাটি করেন। মামলায় ওই চেয়ারম্যানসহ আরো দুজনকে আসামি করা হয়। তারা হলেন, দড়ি কিশোরপুর গ্রামের মৃত আব্দুল হাকিমের ছেলে গোলামআজম (৩৮) ও গোলাম আজমের স্ত্রী চামেলী বেগম (৩৪)।

এজাহার সূত্রে জানা গেছে, বাদী সাহিনা খাতুনের জমিতে বাংলালিংক মোবাইল কোম্পানী চুক্তি সাপেক্ষে লীজ নিয়ে টাওয়ার নির্মাণ করেন। চুক্তি মোতাবেক বাংলালিংক মোবাইল কোম্পানী তাকে টাওয়ারের মাসিক ভাড়া প্রদান করেন। এমতাবস্থায় গত ২৯ মার্চ দুপুর ১টায় দুর্দান্ত প্রকৃতির দাঙ্গাবাজ, চাঁদাবাজ, ভূমিদস্যু ও একাধিক মামলার আসামী ইউপি চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতার নেতৃত্বে বাকী আসামীসহ টাওয়ার ভাড়ার টাকা থেকে তাদের স্বামী-স্ত্রীর নিকট এক লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করেন। চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় তাদের বসতবাড়ীর বাহির আঙ্গীনায় আসামীগণ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাদের উদ্দেশ্য করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। সাহিনা খাতুন অন্যায় গালিগালাজের প্রতিবাদ করলে চেয়ারম্যানের হুকুমে বাকী আসামীদ্বয় এলোপাথারীভাবে মাইর পিট করে। মাইর পিটের ফলে মাটিতে পড়ে গেলে ২নং আসামী গোলাম আজম হত্যার উদ্দেশ্য পা দিয়ে গলা চেপে ধরেন। এমতাবস্থায় তার স্বামী তাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে তাকেও এলোপাথারীভাবে মাইর পিট করেন। তাদের আত্মচিৎকারে স্থানীয় লোক এগিয়ে এসে গুরুত্বর আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে সাহিনা খাতুনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করান এবং তার স্বামী বাড়ীতেই পল্লী চিকিৎসক দ্বারা চিকিৎসা নেন।

মামলার বাদী সাহিনা খাতুন জানান, স্থানীয় মহৎ মাতাব্বর ব্যক্তিবর্গ আসামীদের সাথে আপোষ মিমাংসায় ব্যর্থ হলে আমাকে আইনি ব্যবস্থা নিতে বলে। সেই মোতাবেক আমি ন্যায় বিচার পেতে আদালতে মামলা করেছি। তিনি আরও বলেন, থেতরাই ইউপি চেয়ারম্যান আতার উৎপাতে এলাকাবসী অতিষ্ঠ।

এ বিষয়ে থেতরাই ইউপি চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমার বিরোধী পক্ষ প্রতিনিয়ত দুই একটি লোক সেট করে আমার বিরুদ্ধে থানা ও কোর্টে মামলা করেই চলছে।

বাদীর আইনজীবী এ্যাডভোকেট সেলিম মিঞা সেতু বলেন, বিজ্ঞ আদালত মামলাটি কুড়িগ্রাম ওসি ডিটেক্টিভ ব্রাঞ্চ (ডিবি) কে তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved © 2017 তোলপাড়
Customized BY NewsTheme