সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০২:৪৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
‘বাবাকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে হত্যা করেছি’ বিলের পানিতে ভাসছে কাউন্সিলরের মরদেহ ইজিবাইক চালককে হত্যার দায়ে যুবকের মৃত্যুদণ্ড রাষ্ট্রপতির কাছে স্মারকলিপি জমা দিল কোটা আন্দোলনকারীরা একইদিনে বাংলাদেশে মুক্তি ‘পদাতিক’ ট্রাম্পের হামলাকারী কে এই যুবক? প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্ন, মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিরা পাবে না তো রাজাকারের নাতিরা পাবে? কারাগার ভেঙে পালানোর চেষ্টাকালে বন্দুকযুদ্ধ ,নিহত ৮ জঙ্গিবাদ থামিয়েছি, এখন দুর্নীতিবাজদের ধরছি জানিয়েছে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী দেশের যেকোন দুর্যোগ মূহুর্তে র‌্যাব সবসময় বন্ধু হয়ে জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছে কুড়িগ্রামে জানিয়েছে র‌্যাব মহাপরিচালক

কুড়িগ্রামে ই-কমার্স উদ্দোক্তা প্রদর্শনী

রিপোর্টারের নাম / ৫৯ টাইম ভিউ
Update : বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন, ২০২৪

ইউসুফ আলমগীর:

কুড়িগ্রামে অনলাইন ব্যবসায়ীদের নিয়ে শুরু হয়েছে ‘ই-কমার্স উদ্যোক্তা প্রদশর্নী মেলা’। জেলার প্রান্তিক উদ্যোগতারা কিভাবে তাদের পন্য সারা বাংলাদেশের ক্রেতাদের মাঝে বিক্রি করছেন তা দেখে অনেকই চমৎকৃত হচ্ছেন। অনেকেই আগ্রহী হয়ে উঠছেন এমন ব্যবসায়।

বৃহস্পতিবার কুড়িগ্রাম টাউন পুকুর পার্ক চত্বরে ক্রিশ্চিয়ান-এইডের” অর্থায়নে দিনব্যাপি প্রদর্শনী মেলার আয়োজন করে এইড কুমিল্লা।
উক্ত অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কুড়িগ্রাম জেলা আইসিটি অফিসার মোঃ সাইফ বিন হাসান, নাগেশ্বরী উপজেলা আইসিটি অফিসার মো: ইলিয়াস হোসেন এবং চিলমারী উপজেলা আইসিটি অফিসার জোতির্ময় রায়, এইড-কুমিল্লার প্রকল্প ব্যবস্থাপক মোঃ মুরশিদ আলম, আইসিটি অফিসার মোঃ সাখাওয়াত হোসেন, ফিন্যান্স অফিসার মোঃ শহিদুল ইসলাম, নাগেশ্বরী উপজেলা কো-অর্ডিনেটর মোঃ আজিজুল হাসান, চিলমারী উপজেলা কো-অর্ডিনেটর আজিজুল হাসান, উপজেলা ফিল্ড ফ্যাসিলিটেটর মোছা: মোর্শেদা খাতুন।

আয়োজকরা জানান, এ প্রদর্শনীর মাধ্যমে বেকার ও তরুণ উদ্দোক্তারা অনলাইনে ব্যবসা সম্পর্কে ধারণা লাভ করেন। এবং নিজেদের লেখা-পড়া, ব্যাবসা ও সংসারের কাজের পাশাপাশি নিজের মত করে আয়ের পাশাপাশি নিজেকে একজন সফল উদ্যোক্তা হিসেবে তৈরি করতে পারেন।

এইড কুমিল্লা কর্তৃপক্ষ জানান, বর্তমানে নাগেশ্বরীতে ৫০টি এবং চিলমারীতে ২০টি দলের সদস্যদের নিয়ে প্রকল্পটি চলমান রয়েছে ও যার মধ্যে নাগেশ্বরীতে ১৪ জন এবং চিলমারীতে ৭ জন উদ্যোক্তাদের UVCLPDA প্রকল্পের পক্ষ থেকে কিছু আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করা হয়েছে, পাশাপাশি অনেক রকম পরামর্শ দেয়া হয় এবং তাদের তৈরি বিভিন্ন রকম পণ্য যেন তারা সহজে বাজারজাত করতে পারেন, সে ব্যাপারে বিভিন্ন সংগঠনের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করার কাজ করে যাচ্ছে ।

এ ব্যাপারে কয়েকজন সুবিধাভোগী উদ্যোক্তা বলেন, আগে আমরা ক্ষুদ্র পর্যায়ে পণ্য উৎপাদন করতাম এবং এলাকায় ছোট পর্যায়ে বিক্রি হতো, এইড-কুমিল্লা এনজিওর মাধ্যমে তাদের বিভিন্ন প্রশিক্ষণ নিয়ে এখন আমরা অনেক কিছু শিখেছি এবং ই-কমার্সের মাধ্যমে অনলাইনে ব্যাবসা করছি। তাছাড়া তারা আমাদের ব্যাবসায় আর্থিক সহায়তা করায় আমাদের ব্যাবসার পরিধি এবং আয় বৃদ্ধি পেয়েছে যার ফলে আমরা পরিবারের মাঝেও আর্থিক কিছু সহায়তা করতে পারছি। আমরা এখন সবাই ফেসবুকে পেজে নিজের তৈরি করা পণ্য পোস্ট করে খুব সহজে সবার হাতে পৌঁছে দিতে পারছি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর