সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০১:৫৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
‘বাবাকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে হত্যা করেছি’ বিলের পানিতে ভাসছে কাউন্সিলরের মরদেহ ইজিবাইক চালককে হত্যার দায়ে যুবকের মৃত্যুদণ্ড রাষ্ট্রপতির কাছে স্মারকলিপি জমা দিল কোটা আন্দোলনকারীরা একইদিনে বাংলাদেশে মুক্তি ‘পদাতিক’ ট্রাম্পের হামলাকারী কে এই যুবক? প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্ন, মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিরা পাবে না তো রাজাকারের নাতিরা পাবে? কারাগার ভেঙে পালানোর চেষ্টাকালে বন্দুকযুদ্ধ ,নিহত ৮ জঙ্গিবাদ থামিয়েছি, এখন দুর্নীতিবাজদের ধরছি জানিয়েছে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী দেশের যেকোন দুর্যোগ মূহুর্তে র‌্যাব সবসময় বন্ধু হয়ে জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছে কুড়িগ্রামে জানিয়েছে র‌্যাব মহাপরিচালক

কোপা আমেরিকার সেমিফাইনালে আর্জেন্টিনা !

রিপোর্টারের নাম / ৪৪ টাইম ভিউ
Update : শুক্রবার, ৫ জুলাই, ২০২৪

কোপা আমেরিকার রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে টাইব্রেকারে মেসির পেনাল্টি মিসের পরও ইকুয়েডরকে হারিয়ে কোপার সেমিফাইনালে উঠেছে আর্জেন্টিনা। ৯০ মিনিট শেষে ম্যাচ ১-১ সমতায় শেষ হলে খেলা গড়ায় টাইব্রেকারে। সেখানে মেসি পেনাল্টি মিস করলেও বাকি সকলেই জালের দেখা পান। আর ইকুয়েডরের প্রথম দুই ফুটবলার পেনাল্টি ঠেকিয়ে আবারও নায়ক বনে যান এমিলিয়ানো মার্টিনেজ।

হাইভোল্টেজ ম্যাচের ৬৪তম মিনিটে এনার ভ্যালেন্সিয়া পেনাল্টি মিস না করলে হয়তো খেলা টাইব্রেকারে গড়াতো। তবে সেটা আর হয়নি। প্রথম হাফে করা লিসান্দ্রো মার্টিনেজের গোল আর্জেন্টিনাকে ম্যাচের নব্বই মিনিট পর্যন্ত এগিয়ে রেখেছিলো। তবে ৯১তম মিনিটে কেভিন রদ্রিগেজ ইকুয়েডরকে সমতায় ফেরায়। এরপর ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। কোপা আমেরিকায় কোয়ার্টার ও সেমিফাইনালে নির্ধারিত সময়ের পর অতিরিক্ত ৩০ মিনিট আর খেলা হয় না।-খবর তোলপাড় ।

ম্যাচ সরাসরি চলে যায় টাইব্রেকারে। সেই টাইব্রেকারে আর্জেন্টিনার হয়ে প্রথম পেনাল্টি নেন লিওনেল মেসি। তবে তিনি বারে মারেন। কিনতি ইকুয়েডরের নেয়া প্রথম দুই পেনাল্টি ঠেকিয়ে নায়ক বনে যান আর্জেন্টাইন গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্টিনেজ। আর অপরদিকে আর্জেন্টিনা হয়ে বাকি চার পেনাল্টিতে গোল করেন আলভারেজ, অ্যালিস্টার, মন্টিয়েল ও ওটামেন্ডি।

এর আগে প্রথম হাফে আক্রমণে আধিপত্য দেখানোর পর দ্বিতীয় হাফেও সেই ধারা বজায় রাখে ইকুয়েডর। বারবার আর্জেন্টিনার শিবিরে হানা দেয় ভ্যালেন্সিয়া-পায়েজরা। এরই মধ্যে ম্যাচের ৬২ মিনিটে পেনাল্টি পায় ইকুয়েডর। ডি-বক্সের ভিতরে ডি পলের হাতে বল লাগলে পেনাল্টি পায় ইকুয়েডর। তবে পেনাল্টি পেয়েও কাজে লাগাতে পারেনি ইকুয়েডরের স্ট্রাইকার এনার ভ্যালেন্সিয়া। আর্জেন্টাইন গোলরক্ষক বিপরীত দিকে ঝাপ দিলেও ভ্যালেন্সিয়া বারে মারেন। এরপরও বেশকিছু সুযোগ পেয়েছে ইকুয়েডর। তবে সেসব আক্রমণে তেমন ধার ছিল না। তবে নির্ধারিত সময়ের পর বাড়ানো সময়ের প্রথম মিনিটে ইকুয়েডরকে সমতায় ফেরান কেভিন রদ্রিগেজ। তাতে ১-১ গোলে শেষ হয় আর্জেন্টিনা-ইকুয়েডরের নির্ধারিত সময়ের ম্যাচ।

এর আগে প্রথম হাফের ৩৫তম মিনিটে ম্যাচে নিজেদের প্রথম কর্নার থেকেই গোল পায় আর্জেন্টিনা। মেসির নেয়া কর্নার প্রথম ম্যাক অ্যালিস্টারের মাথায় লেগে পিছনে চলে যায়। তা পেয়ে সহজে হেডে গোল করেন লিসান্দ্রো মার্টিনেজ। এই জয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত হল আর্জেন্টিনার। এই ম্যাচে আর্জেন্টিনার অধিনায়ক লিওনেল মেসিকে নিয়ে শঙ্কা ছিল। তবে মেসি পুরো ম্যাচই খেলেছেন। যদিও ম্যাচে তার পারফর্মেন্স তেমনটা ভালো ছিল না।

প্রসঙ্গত, ২০২২ বিশ্বকাপ ফাইনালেও এই মার্টিনেজের বীরত্বে শিরোপা জিতেছিল আর্জেন্টিনা। তখন টাইব্রেকারে কোম্যান ও চুয়ামেনির পেনাল্টি শেভ করে দলকে শিরোপা এনে দিয়েছিলেন এমিলিয়ানো মার্টিনেজ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর