বৃহস্পতিবার, ৩০ নভেম্বর ২০২৩, ১২:৩৯ পূর্বাহ্ন

নোটিশ:
দৈনিক তোলপাড় পত্রিকা থেকে আপনাকে স্বাগতম। তোলপাড় পত্রিকা আপনার আমার সবার। আপনার এলাকার উন্নয়নের ভূমিকা হিসেবে পত্রিকাটির মাধ্যমে আমরা দায়িত্ব নিয়েছি।  এ জন্য বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা-উপজেলা-বিভাগ-কলেজ ক্যাম্পাসসহ গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় সাংবাদিক নিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পত্রিকাটির পর্ষদ।  আগ্রহী হলে আপনিও এক কপি রঙিন ছবিসহ নিম্ন ঠিকানায় সিভি প্রেরণ করে নিয়োমিত সংবাদ পাঠাতে পারেন। সেই সাথে সারা বিশ্বে আপনার এলাকার প্রতিষ্ঠানের প্রচারেরর জন্য  ৫০% কমিশনে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন।

একজন এয়ার হোস্টেস নোবেলকে মাদক সাপ্লাই দেয় জানিয়েছে নোবেলের স্ত্রী

বাংলাদেশের আলোচিত সঙ্গীত শিল্পী মাঈনুল আহসান নোবেলের স্ত্রী সালসাবিল মাহমুদ বলেছেন, আন্তর্জাতিক রুটে চলাচল করা বিমানের একজন এয়ার হোস্টেস নোবেলকে মাদক সরবরাহ করে। শনিবার (২০ মে) প্রতারণা মামলায় নোবেলকে গ্রেপ্তারের পর তার স্ত্রী সালসাবিলকে মিন্টো রোডে ডাকে ডিবি। সেখানে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ তথ্য জানান তিনি। -বিনোদন তোলপাড় ।

নোবেল প্রসঙ্গে সালসাবিল সংবাদ্মাধ্যমকে বলেন, মেয়ে সম্পৃক্ততা আমি কখনও দেখিনি তাকে। কিন্তু তাদের চক্রে একটা এয়ার হোস্টেস চক্র কাজ করে, যেখান থেকে একজন তার সঙ্গে যোগাযোগ রাখে এবং যত ধরণের মাদক সে তাকে সাপ্লাই দেয়। সেই এয়ার হোস্টেসের নাম বলতে রাজি হননি তিনি। এর আগে একটি মাদক চক্রকে ইঙ্গিত করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন সালসাবিল। এ কারণে তার কাছে লাগাতার থ্রেট দেয়া কল আসত বলেও জানান তিনি।

দেশের জনপ্রিয় এই সঙ্গীত শিল্পীর মাদকে আসক্তি কিভাবে হলো এমন প্রশ্নের জবাবে সালসাবিল বলেন, আমি তার সঙ্গে সংসার করেছি সে খুব ভালো একজন মানুষ ছিল। কোনো একটা কারণে, কোনো একটা চক্রের মধ্যে পরে প্রচণ্ড পরিমানে মাদকাশক্ত হয়ে যায়। এরপরে তার ব্যবহারে পরিবর্তন আসে এবং সে অন্যরকম মানুষে পরিণত হয়, মাদকাশক্ত মানুষে পরিণত হয়। এরপর যে ঘটনাগুলো ঘটে, সেটা নেশার ফলশ্রুতিতে ঘটেছে।

এ সময় তিনি বলেন, আমার উপর শারিরিক নির্যাতন করা হতো। আমাকে প্রচণ্ড পরিমানে মারধর করা হত, তখন আমি গুলশান থানায় একটা জিডি করেছিলাম। একদিন প্রচণ্ড যখন পরিমানে মারছে তখন আমি ৯৯৯-কল দেই। সেখানে ১০ মিনিটের মধ্যে পুলিশ চলে আসে, তখন তারা এসে নোবেলকে ঠেকিয়ে আমাকে বাঁচায়। তখন তারা নোবেলকে জিজ্ঞেস করে- কেন মারছেন। নোবেল তাদেরকে বলে- আমি আসলে অনেক ধরণের জিনিস খাই, আমার মাথা ঠিক থাকেনা আমি তাকে মারি।

তিনি আরও বলেন, এরপর ওখান থেকে আমাকে যখন উদ্ধার করা তখন আমি গুলশান থানায় একটা জিডি করি। এরপর আমি আর আইনগতভাবে এগোয়নি। কারণ আমি চাচ্ছিলাম কোনোভাবে সে নেশাটা থেকে বের হয়ে আসুক একটা সুস্থ জীবন যাপন করুক। আমার উদ্দেশ্য তাকে শাস্তি দেয়া ছিল না, আমার উদ্দেশ্য ছিল সে যেন ভালোভাবে জীবনযাপন করতে পারে। এদিকে নোবেলের বিরুদ্ধে কোনো মামলা না করলেও ডিবিতে মৌখিক অভিযোগ করেছেন বলেও জানান সালসাবিল।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

দৈনিক তোলপাড় এর পক্ষ থেকে সকল পাঠক লেখক সাংবাদিক ও শুভানুধায়ীকে প্রাণঢালা অভিনন্দন। আনন্দের সাথে জানাচ্ছি যে, পত্রিকাটি বাংলাদেশের প্রতিটি বিভাগ জেলা উপজেলা থানা কলেজ ক্যাম্পাস-এ এক ঝাঁক তরুন-তরুনী সাংবাদিক নিয়োগ করতে যাচ্ছে ।

আগ্রহীরা দ্রুত এক কপি ছবিসহ প্রধান সম্পাদক বরাবর আবেদন করুন.. আবেদন পাঠানোর ঠিকানা-dailytolpercv@gmail.com

এছাড়া বিশেষ ৫০% ছাড়ে সারাবিশ্বে প্রচারের জন্য আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে পারেন। বিজ্ঞাপন পাঠানোর ঠিকানা-dailytolpernews@gmail.com যোগাযোগ করুন-+88 01915394614, +8801719026700


© All rights reserved © 2017 তোলপাড়
error: Content is protected !!