দাদার ইচ্ছা পূরণ: পালকিতে বউ আনলো নাতি – সারাক্ষণ সংবাদ
ঢাকাMonday , 3 July 2023
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. এক্সক্লোসিভ
  6. কবিতা-সাহিত্য
  7. কুড়িগ্রাম
  8. কুমিল্লা
  9. খুলনা
  10. খেলাধুলা
  11. গণমাধ্যম
  12. চট্টগ্রাম
  13. চাকরি বার্তা
  14. জাতীয়
  15. ঢাকা

দাদার ইচ্ছা পূরণ: পালকিতে বউ আনলো নাতি

admin
July 3, 2023 6:35 pm
Link Copied!

Visits: 10

সংবাদদাতা, কুড়িগ্রাম:

৪বেহালার পাল‌কি, পর‌নে কা‌লো শেরওয়া‌নি, মাথায় পাগ‌ড়ি প‌রে শতাধিক বরযা‌ত্রী নি‌য়ে নববধূ‌কে আনতে যা‌চ্ছে বর। গ্রাম বাংলার হারা‌নো এই ঐতিহ্য হঠাৎ দেখ‌তে পে‌য়ে এলাকার মানুষজন যেমন হয়েছেন অবাক তেমনি পেয়েছেন আনন্দ।

শ‌নিবার (১ জুলাই) এমন দৃশ্য দেখা গে‌ছে কু‌ড়িগ্রা‌মের চিলমারী উপ‌জেলার রমনা এলাকায়। বর জাকা‌রিয়া সরকার স্ত্রী‌কে বরণ কর‌তে এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নেন।

জানা যায়, বর জাকা‌রিয়া সরকার উপ‌জেলার রমনা মডেল ইউনিয়‌নের সরকারপাড়া গ্রা‌মের ব্যবসায়ী খ‌লিলুর রহমান সরকা‌রের ছেলে। এক ছে‌লে এক মে‌য়ের ম‌ধ্যে জাকা‌রিয়া বড়। তি‌নি জগন্নাথ বিশ্ব‌বিদ্যালয় থে‌কে স্নাত‌কত্তোর পাস ক‌রে‌ন। বর্তমা‌নে তি‌নি বাবার ব্যবসা দেখাশুনা কর‌ছেন। কনে ফাতেমাতুজ জোহরা পিয়ার বাড়িও একই এলাকায়। তিনি ব্যবসায়ী আবু জেয়াদ আজাদ বিপ্লবের মেয়ে। তার দুই সন্তা‌নের ম‌ধ্যে পিয়া বড়। পিয়া হাজী দানেশ বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত। শ‌নিবার বি‌কে‌লে পা‌রিবা‌রিকভা‌বে তা‌দের বি‌য়ে হয়।

বি‌য়ের দাওয়াতে যাওয়া আবু ছা‌লেহ, শ‌ফিকুল ইসলামসহ অনেকেই জানান, পাল‌কি এক‌টি পুর‌নো ঐতিহ্য। এই যু‌গে বি‌য়ে‌তে সচরাচর বাস-মাইক্রোবাস, হেলিকপ্টারসহ আধুনিক বাহন দেখা যায়। কিন্তু জাকা‌রিয়ার বি‌য়ে‌ পাল‌কি দেখে আমরা খুবই আনন্দিত হয়েছি। বিষয়‌টি সবাইকে মুগ্ধ ক‌রে‌ছে। বর জাকারিয়ার গায়ে হলুদ থেকে শুরু করে বি‌য়ের প্রত্যেকটি আনুষ্ঠা‌নিকতাই ছিল জাঁকজমকপূর্ণ।

গায়ে হলুদ উপলক্ষ্যে পুরুষ‌দের জন্য ১৫০পিস পাঞ্জাবি, নারী‌দের জন্য ২০০ পিস শাড়ী উপহার দেন তি‌নি।

কনের বাবা আবু জেয়াদ আজাদ বিপ্লব ব‌লেন, আমরা একই গ্রা‌মের বাসিন্দা। বি‌য়েতে পাল‌কি থাক‌বে এটা দুই প‌রিবা‌রের সম্ম‌তি ছিল। পা‌ল‌কি গ্রাম বাংলার এক‌টি হারা‌নো ঐতিহ্য। এ প্রজন্ম পাল‌কির নাম শুন‌লেও চো‌খে দে‌খে‌নি। হারা‌নো ঐতিহ্যকে ধ‌রে রাখ‌তেই আমা‌দের এই আয়োজন।

বর জাকা‌রিয়া সরকার বলেন, বেশ ক‌য়েক বছর আগে আমার দাদা ওসমান আলী সরকার মারা গেছেন। দাদার ইচ্ছে ছিল একমাত্র না‌তির বি‌য়ে হ‌বে পাল‌কি‌তে করে। তাছাড়া কা‌লের বিবর্ত‌নে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য পাল‌কি বিলুপ্ত হ‌য়ে গে‌ছে। দাদার ইচ্ছে পূরণ এবং হারা‌নো ঐতিহ্য ফি‌রি‌য়ে আন‌তে মূলত এই আয়োজন করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।