আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনসহ বিএনপি’র সমাবেশ – সারাক্ষণ সংবাদ
ঢাকাFriday , 28 July 2023
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. এক্সক্লোসিভ
  6. কবিতা-সাহিত্য
  7. কুড়িগ্রাম
  8. কুমিল্লা
  9. খুলনা
  10. খেলাধুলা
  11. গণমাধ্যম
  12. চট্টগ্রাম
  13. চাকরি বার্তা
  14. জাতীয়
  15. ঢাকা

আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনসহ বিএনপি’র সমাবেশ

admin
July 28, 2023 11:46 am
Link Copied!

Visits: 8

বিএনপি ও আওয়ামী লীগের তিন সহযোগী সংগঠনের সমাবেশ আজ শুক্রবার অনুষ্ঠিত হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলন থেকে ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক তাদের অনুমতির কথা জানান। বিএনপি নয়াপল্টনে মহাসমাবেশ এবং আওয়ামী লীগে তিন সহযোগী সংগঠন বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ গেটে শান্তি সমাবেশ করবে। এ উপলক্ষে তারা মঞ্চ তৈরিসহ সব প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট নেতারা।-খবর তোলপাড় ।

অপেক্ষায় শান্তি সমাবেশের নেতাকর্মীরা:

আওয়ামী লীগের সহযোগী তিন সংগঠনের শান্তি সমাবেশের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে দলগুলো। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ গেটে প্রস্তুত হচ্ছে মঞ্চও। এরই মধ্যে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ঢাকায় পৌঁছেছে নেতাকর্মীরা। সংগঠনের দায়িত্বশীল পর্যায়ের দাবি, ছয় থেকে সাত লাখ নেতাকর্মীর জমায়েত হতে পারে এই শান্তি সমাবেশে।

মহাসমাবেশের জন্য প্রস্তুত বিএনপি:

আগামীকাল বিএনপির মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে রাজধানীর নয়াপল্টন এলাকায়। এ উপলক্ষে বিএনপি নেতাকর্মীরা সমাবেশস্থল হাজির হচ্ছেন। এতে ভরে যায় কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের রাস্তা। যদিও বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে পল্টনের কার্যালয়ের সামনের রাস্তা ছেড়ে চলে যেতে বলা হয়। এরপর পরপরই বাঁশি দিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের সরিয়ে দিতে দেখা গেছে কর্মরত পুলিশের সদস্যদের।

পার্টি অফিসের সামনে থাকা মাইকে দলটির পক্ষ থেকে ঘোষণা দেওয়া হয়, পার্টির নির্দেশ মেনে চলতে হবে। রাস্তা ফাঁকা রাখতে হবে। পুলিশের কথা শুনতে হবে। আপনার যদি মহাসমাবেশ সফল করতে চান, আপনারা যদি দলের ভালো চান, রাস্তা ছেড়ে নিজ নিজ অবস্থানে চলে যেতে হবে।

মাইকে আরও ঘোষণা করা হয়, আপনাদের কাছে দলের পক্ষ থেকে অনুরোধ করছি, আজকে দলের মহাসচিব অনুরোধ করেছেন—আপনাদের রাস্তা ছেড়ে দিতে হবে। রাস্তা ছেড়ে দিয়ে আপনারা নিজ নিজ অবস্থানে চলে যাবেন।

সময় সন্ধ্যা ৭টা পাঁচ মিনিট। হঠাৎ পুলিশ বাঁশি দিয়ে সবাইকে সরিয়ে দেন। সে সময় পুলিশকে বলতে শোনা যায়, আপনারা সবাই চলে যান। রাস্তা ফাঁকা করুন। গাড়ি চলতে অসুবিধা হচ্ছে। আমাদের দায়িত্ব পালন করতে দিন।

পরে নেতাকর্মীরা তাদের অবস্থান থেকে সরে যেতে থাকেন। স্বাভাবিক হতে শুরু করে সড়ক। সাচ্ছন্দ্যে চলতে শুরু করে যানবাহন।

সমাবেশে মানতে হবে যে সব শর্ত:

ডিএমপির কমিশনারের পক্ষে বিশেষ সহকারী সৈয়দ মামুন মোস্তফা স্বাক্ষরিত ২৩ শর্ত দেয়া হয়েছে দল দুটিকে। এর মধ্যে শর্তের একটি চিঠি দেয়া হয়েছে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীকে। অপরটি দেয়া হয়েছে আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদকে।
সেখানে বলা হয়েছে, আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ২৩ শর্ত যথাযথভাবে পালন সাপেক্ষে ২৮ জুলাই দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত সমাবেশের অনুমতি দেয়া হলো।
এ অনুমতিপত্র স্থান ব্যবহারের অনুমতি নয়, স্থান ব্যবহারের জন্য অবশ্যই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে অনুমোদন নিতে হবে।
স্থান ব্যবহারের অনুমতিপত্রের উল্লেখিত শর্তাবলি যথাযথভাবে পালন করতে হবে।
অনুমদিত স্থানেই মহাসমাবেশের যাবতীয় কার্যক্রম সীমাবদ্ধ রাখতে হবে।
কোনো অবস্থাতেই অনুমোদিত স্থানের বাইরে কোনো ধরনের জনসমাগম করা যাবে না।
নিরাপত্তার জন্য নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় পর্যাপ্ত সংখ্যক স্বেচ্ছাসেবক (দৃশ্যমান আইডি কার্ডসহ) নিয়োগ করতে হবে।
স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের নির্দেশনা অনুযায় নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় মহাসমাবেশস্থলের চারদিকে উন্নত রেজ্যুলেশনযুক্ত সিসি ক্যামেরা স্থাপন করতে হবে।
নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় মহাসমাবেশস্থলে আগতদের হ্যান্ড মেটাল ডিটেক্টরের মাধ্যমে (ভদ্রচিতভাবে) চেকিংয়ের ব্যবস্থা করতে হবে।
নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় মহাসমাবেশস্থলে অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা রাখতে হবে।
শব্দদূষণ প্রতিরোধে সীমিত আকারে মাইক বা শব্দযন্ত্র ব্যবহার করতে হবে, কোনোভাবেই অনুমোদিত স্থানের বাইরে মাইক বা শব্দযন্ত্র ব্যবহার করা যাবে না।
অনুমোদিত স্থানের বাইরে প্রজেক্টর স্থাপন করা যাবে না।
আজান, নামাজ ও অন্যান্য ধর্মীয় সংবেদনশীল সময়ে মাইক ব্যবহার করা যাবে না।
ধর্মীয় অনুভূতির ওপর আঘাত আসতে পারে, এমন কোনো বিষয়ে ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন, বক্তব্য প্রদান বা প্রচার করা যাবে না।
মহাসমাবেশের কার্যক্রম ছাড়া মঞ্চকে অন্য কোনো কাজে ব্যবহার করা যাবে না।
মহাসমাবেশ শুরুর দুই ঘণ্টা আগে লোকজন সমবেত হওয়ার জন্য আসতে পারবে।
অনুমোদিত সময়ের মধ্যে (দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৫টা) মহাসমাবেশের সার্বিক কার্যক্রম শেষ করতে হবে।
কোনো অবস্থাতেই মূল সড়কে যানবাহন চলাচল প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা যাবে না।
আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ও জননিরাপত্তা বিঘ্নিত হয়, এমন কার্যকলাপ করা যাবে না।
রাষ্ট্রবিরোধী কোনো কার্যকলাপ বা বক্তব্য প্রদান করা যাবে না।
উসকানিমূলক বক্তব্য প্রদান বা প্রচারপত্র বিলি করা যাবে না।
কোনো ধরনের লাঠিসোঁটা/ব্যানার, ফেস্টুন বহনের আড়ালে লাঠি, রড ব্যবহার করা যাবে না।
আইনশৃঙ্খলার অবনতি ও কোনো বিরূপ পরিস্থিতির সৃষ্টি হলে আয়োজনকারী কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না।
উল্লেখিত শর্তাবলি পালন না করলে তাৎক্ষণিকভাবে এ অনুমতির আদেশ বাতিল বলে গণ্য হবে।
জনস্বার্থে কর্তৃপক্ষ কোনো কারণ দর্শানো ছাড়া এ অনুমতির আদেশ বাতিল করার ক্ষমতা সংরক্ষণ করেন।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।