মঙ্গলবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২৩, ০২:৩৬ অপরাহ্ন

নোটিশ:
দৈনিক তোলপাড় পত্রিকা থেকে আপনাকে স্বাগতম। তোলপাড় পত্রিকা আপনার আমার সবার। আপনার এলাকার উন্নয়নের ভূমিকা হিসেবে পত্রিকাটির মাধ্যমে আমরা দায়িত্ব নিয়েছি।  এ জন্য বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা-উপজেলা-বিভাগ-কলেজ ক্যাম্পাসসহ গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় সাংবাদিক নিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পত্রিকাটির পর্ষদ।  আগ্রহী হলে আপনিও এক কপি রঙিন ছবিসহ নিম্ন ঠিকানায় সিভি প্রেরণ করে নিয়োমিত সংবাদ পাঠাতে পারেন। সেই সাথে সারা বিশ্বে আপনার এলাকার প্রতিষ্ঠানের প্রচারেরর জন্য  ৫০% কমিশনে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন।

রাজারহাটে দূর্গারাম আবাসন প্রকল্পের সরু ব্রীজটি ভেঙ্গে অচল, চলাচলে চরম ভোগান্তি

প্রহলাদ মন্ডল সৈকত:
কুড়িগ্রামের রাজারহাটে দূর্গারাম আবাসন প্রকল্পের পাশে খালের উপর ৩৬বছর আগের একটি সরু ব্রীজের মাঝখানে ভেঙ্গে যাওয়ায় চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। চরম ভোগান্তিতে পড়েছে দূর্গারাম আবাসন প্রকল্পের শতাধিক পরিবারসহ প্রায় কয়েক হাজার মানুষ।

এলাকাবাসীরা জানান, উপজেলার সদর ইউনিয়নের দূর্গারাম আবাসন প্রকল্পটি চালু হওয়ার পর রাজারহাট হতে আবাসন প্রকল্প পর্যন্ত সড়কটি পাকা করণ করা হয়। এর আগে আবাসন প্রকল্পের অদুরে একটি খালের উপর দিয়ে যাতায়াতের জন্য ৩৬বছর আগে কোটি ব্যয়ে সরু ব্রীজ নির্মাণ করা হয়েছিল। ওই ব্রীজের উপর দিয়ে আবাসন প্রকল্পের অসহায় পরিবারগুলো এবং আশপাশের প্রায় কয়েক হাজার পরিবার নিয়মিত যাতায়াত করে। ব্রীজটি সরু হওয়ায় মানুষ এটির উপর দিয়ে ভারি যানবাহন নিয়ে যেতে পারে না। এছাড়া বর্ষা মৌসুমে কয়েকবার বন্যার কারণে আবাসন প্রকল্পের সড়কটি ভেঙ্গে যায়। এমনকি সরু ব্রীজের দু’পাশের মাটি ধ্বসে পড়ে। বিকল্প পথ না থাকায় মানুষ কোন রকমে ওই পথ দিয়ে চলাচল করতে থাকে। এক পর্যায়ে সরু ব্রীজটির মাঝখানের পাটাতন ও র‌্যালিং ভেঙ্গে খালে পড়ে যায়। ওই ব্রীজের উপর দিয়ে কোমলমতি শিশুরা যেতে পারে না। আবাসন প্রকল্পের পাশে দূর্গারাম আবাসন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ও রয়েছে। সেখানে ওই এলাকার শিশুরা পড়ালেখা করে। কিন্তু ব্রীজটি ভেঙ্গে যাওয়ায় ভয়ে ভয়ে শিশুরা পারাপার হচ্ছে। অনেকে খালে পড়ে যাওয়ার ভয়ে বিদ্যালয়ে যাচ্ছে না।

 

ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক স্বপন কুমার রায় বলেন, মটর সাইকেল নিয়ে ব্রীজের উপর দিয়ে আসা যাওয়া করা যায় না। প্রায় ৭/৮ কিলোমিটার ঘুরে বিদ্যালয়ে আসতে হয়। ব্রীজ ভেঙ্গে যাওয়ায় ওপারের ছাত্র-ছাত্রীরা স্কুলে আসছে না।

ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য কাজল কান্তি রায় বলেন, ব্রীজটি অতি পুরাতন। কখনও সংষ্কার হয় নাই। এখন ভেঙ্গে গেছে। বিষয়টি উপজেলা প্রকৌশলীকে জানানো হয়েছে।

উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা ইব্রাহিম খলিল আনোয়ারীসহ কয়েকজন কর্মকর্তা বলেন, রাজারহাট উপজেলা পরিষদ থেকে দূর্গারাম আবাসন প্রকল্পের দুরত্ব মাত্র ২ কিলোমিটার। সেখানে ব্রীজ ভেঙ্গে যাওয়ায় আবাসনে যেতে ৭/৮ কিলোমিটার রাস্তা পারি দিতে হচ্ছে।

রবিবার(৬আগষ্ট) এ বিষয়ে রাজারহাট উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ সোহেল রানা বলেন, এটি অনেক পুরাতন ব্রীজ। এটি ভেঙ্গে নতুন করে নির্মাণ করতে হবে। নতুন বাজেটে ব্রীজটি নির্মাণ করতে গেলে আড়াই থেকে কোটি টাকা লাগবে।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

দৈনিক তোলপাড় এর পক্ষ থেকে সকল পাঠক লেখক সাংবাদিক ও শুভানুধায়ীকে প্রাণঢালা অভিনন্দন। আনন্দের সাথে জানাচ্ছি যে, পত্রিকাটি বাংলাদেশের প্রতিটি বিভাগ জেলা উপজেলা থানা কলেজ ক্যাম্পাস-এ এক ঝাঁক তরুন-তরুনী সাংবাদিক নিয়োগ করতে যাচ্ছে ।

আগ্রহীরা দ্রুত এক কপি ছবিসহ প্রধান সম্পাদক বরাবর আবেদন করুন.. আবেদন পাঠানোর ঠিকানা-dailytolpercv@gmail.com

এছাড়া বিশেষ ৫০% ছাড়ে সারাবিশ্বে প্রচারের জন্য আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে পারেন। বিজ্ঞাপন পাঠানোর ঠিকানা-dailytolpernews@gmail.com যোগাযোগ করুন-+88 01915394614, +8801719026700


© All rights reserved © 2017 তোলপাড়
error: Content is protected !!