ফুলবাড়ীতে ইউপি সদস্য কর্তৃক ইউপি সচিব লাঞ্ছিত – সারাক্ষণ সংবাদ
ঢাকাThursday , 31 August 2023
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. এক্সক্লোসিভ
  6. কবিতা-সাহিত্য
  7. কুড়িগ্রাম
  8. কুমিল্লা
  9. খুলনা
  10. খেলাধুলা
  11. গণমাধ্যম
  12. চট্টগ্রাম
  13. চাকরি বার্তা
  14. জাতীয়
  15. ঢাকা

ফুলবাড়ীতে ইউপি সদস্য কর্তৃক ইউপি সচিব লাঞ্ছিত

admin
August 31, 2023 9:24 pm
Link Copied!

Visits: 50

এমদাদুল হক মিলন, ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম):

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে ইউপি সদস্য কর্তৃক ইউনিয়ন পরিষদের সচিবকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ ঘটেছে। বৃহস্পতিবার(৩১আগষ্ট) দুপুরে ঘটনাটি ঘটে উপজেলার ভাঙ্গামোড় ইউনিয়ন পরিষদে। এদিকে লাঞ্ছিত হওয়ায় ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাত পনে ৮ টার দিকে বিচার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন ইউপি পরিষদের সচিব সায়েদুল ইসলাম । রাত ৮ টার দিকে ইউপি সচিব লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনায় বিচার চেয়ে অভিযোগ দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ভারপ্রাপ্ত ইউএনও মোছা: মলিহা খানম।

অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার ভাঙ্গামোড় ইউনিয়ন পরিষদরর সচিব সাজেদুল ইসলামের কাছে ভাঙ্গামোড় ইউনিয়ন পরিষদের ৬ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যান আবু মুসা হঠাৎ পরিষদের রেজুলেশন বইটি চান। এ সময় ইউপি সচিব সাজেদুল ইসলাম চেয়ারম্যানের অনুমতি ছাড়া দিতে অস্বীকার জানালে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন, এক পর্যায়ে ইউপি সদস্য সচিবকে ধাক্কা মারেন ইউপি সদস্য আবু মুসা । এ সময় উপস্থিত মানুষের অনুরোধ না শুনেই ইউপি সদস্য ইউপি সচিবকে বিভিন্ন প্রকার ভয় ভীতি দেখান এবং সদস্য সচিবকে বলেন তুমি বাইরে থেকে আসো আমি এখানকার স্থানীয় আমি যাহা বলিব তোমাকে তাই করতে হবে। তা না হলে আজকে ফুলবাড়ী যাওয়ার পথে খড়িবাড়ী বাজারেই দেখে নেওয়ার হুমকি দেন ইউপি সদস্য। এ ঘটনায় ভাঙামোড় ইউনিয়ন জুড়ে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে।

ভাঙ্গামোড় ইউনিয়ন পরিষদের সচিব সাজেদুল হক জানান, আমার বাড়ি দুরে হওয়ায় বিভিন্ন সময়ে আমাকে ইউপি সদস্য মুসা প্রায় সময় কারণে-অকারণে হুমকি-ধামকি দিতো। বৃহস্পতিবার দুপুরে একটি পরিষদের রেজুলেশন বইটি চান। আমি তাকে বলেছি চেয়ারম্যানের অনুমতি ছাড়া কোন রেজুলেশন বই দেয়া যাবে না, একথা বলার সঙ্গে সঙ্গে তিনি আমাকে লাঞ্ছিত করেছে। আমি এর দৃষ্টান্তমূলক শান্তির দাবী জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য আবু মুসার সাথে মোবাইল ফোনে কথা হলে তিনি সচিবকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ অস্বীকার জানান, ইউপি সচিবেই আমাকে অকথ্য ভাষায় গালি দেন। আমাকে অকথ্য ভাষায় গালি দেওয়ার বিষয়টি আমি কর্তপক্ষে জানিয়েছি।

এ ব্যাপারে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী (ভুমি) কমিশনার মোছা: মলিহা খানম অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান,তদন্ত করে সত্যতা পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।