বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৭:১০ অপরাহ্ন

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টানা জয়ের মিশনে মাঠে নামছে বাংলাদেশ

রিপোর্টারের নাম / ৩৯ টাইম ভিউ
Update : শুক্রবার, ১০ মে, ২০২৪

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে টানা জয়ের মিশনে শুক্রবার (১০ মে) মাঠে নামছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। প্রথম তিন ম্যাচ জিতে ইতোমধ্যেই সিরিজ নিজেদের করে নিয়েছে টাইগাররা। চতুর্থ এই ম্যাচটি মিরপুর শের-ই বাংলা স্টেডিয়ামে শুরু হবে আজ সন্ধ্যা ছয়টায়।

সিরিজের শেষ দুই ম্যাচের জন্য অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান এবং ইনফর্ম পেসার মুস্তাফিজুর রহমান দলে ফেরায় আরও বেশি শক্তিশালী হয়েছে বাংলাদেশ। ইনজুরি থেকে সুস্থ হওয়ায় শেষ দুই ম্যাচের জন্য সাকিব-ফিজের সঙ্গে দলে ফিরেছেন সৌম্য সরকারও।-খবর তোলপাড় ।

ব্যাটাররা এ পর্যন্ত নিজেদের সেরাটা দিতে না পারলেও সহজেই সিরিজ জিতেছে বাংলাদেশ, যা থেকে স্পস্টতই বুঝা যাচ্ছে শক্তির বিচারে টাইগারদের সঙ্গে সমান অবস্থানে নেই জিম্বাবুয়ে।

সিরিজ জয় নিশ্চিত হলেও চতুর্থ ম্যাচ নিয়ে বাংলাদেশ সতর্ক বলে জানালেন পেসার তাসকিন আহমেদ। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মোটেই আত্মপ্রসাদে ভুগতে রাজি নয় টাইগাররা। তার মতে, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জয় তাদেরকে কোনো কৃতিত্ব দেবে না, কিন্তু হেরে গেলে সমালোচনা শুনতে হবে।

গতকাল সংবাদ সম্মেলনে অবশ্য পেসার তাসকিন আহমেদ বলছিলেন, ‘ব্যাটিং বা বোলিং যেদিনই খারাপ হয় বাইরের সমর্থক বা বাইরের যারাই আছেন, সবার থেকে বেশি হতাশ কিন্তু আমরা হই। কারণ, দিন শেষে আমাদেরই খেলতে হয় এবং আমরা কিন্তু ধারাবাহিকভাবে কাজ করেই যাচ্ছি যে কীভাবে আমাদের ব্যাটিং-বোলিং আরও উন্নতি করা যায়।’

‘এটা আমরাও বুঝতে পারছি আমাদের চাহিদা অনুযায়ী শুরু হচ্ছে না এবং এটা নিয়ে কাজ হচ্ছে। আসলে সর্বোচ্চ চেষ্টা করা ছাড়া তো কোনো কিছু হাতে নেই। তো চেষ্টা করে যাচ্ছি, আমি আশা করি সামনে আরও ভালো কিছু হবে এবং ইনশাল্লাহ এ দুটা ম্যাচেও ভালো হবে।’- বলেন এই পেসার।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জয়ের পরেও কেন রান বেশি রান হচ্ছে না তা নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে। তবে তাসকিন বলছেন ভিন্ন কথা, ‘আসলে যত কথা হচ্ছে জিম্বাবুয়ে নিয়ে, আবার যদি একটা ম্যাচ হেরে যাই, তাহলে কিন্তু অন্য রকম কথা হবে যে জিম্বাবুয়ের কাছে হেরেছি। ছোট দলের সঙ্গে জিতলে কৃতিত্বটা কম পাই। দুর্ভাগ্যজনক হলো, আমাদের অনেক রকম কথাই শুনতে হয়। কিন্তু যখন খেলতে নামি, প্রতিপক্ষ যে-ই হোক, সেরাটা দিয়েই চেষ্টা করি। হয়তো কখনো ভালো হয়, খারাপ হয়। উন্নতির ধারাটা রেখে সবাই বিশ্বকাপে ভালো করার চেষ্টা করছে।’

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলে আবার মিথ্যা আত্মবিশ্বাস যোগ হচ্ছে কিনা? এমন প্রশ্নে তাসকিন বলেন, ‘আসলে ফেইক (মিথ্যা) কনফিডেন্স নয়। ভালো করলে যেকোনো জায়গায়ই আত্মবিশ্বাস বাড়ে। হ্যাঁ, হয়তো আমরা জানি না যুক্তরাষ্ট্রের কন্ডিশন কেমন হবে। ড্রপ ইন উইকেটে খেলা হতে পারে। আমাদের বেশির ভাগ খেলোয়াড়েরই যুক্তরাষ্ট্রে খেলার অভিজ্ঞতা কম। ওইভাবে মানিয়ে নিতে হবে।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর