1. admin@dailytolper.com : admin :
নোটিশ:
দৈনিক তোলপাড় পত্রিকা থেকে আপনাকে স্বাগতম। তোলপাড় পত্রিকা আপনার আমার সবার। আপনার এলাকার উন্নয়নের ভূমিকা হিসেবে পত্রিকাটির মাধ্যমে আমরা দায়িত্ব নিয়েছি।   এ জন্য বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা-উপজেলা-বিভাগ-কলেজ ক্যাম্পাসসহ গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় সাংবাদিক নিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পত্রিকাটির পর্ষদ।  আগ্রহী হলে আপনিও এক কপি রঙিন ছবিসহ নিম্ন ঠিকানায় সিভি প্রেরণ করে নিয়োমিত সংবাদ পাঠাতে পারেন।   প্রচারে প্রসার, আপনার প্রতিষ্ঠান সারা বিশ্বে প্রচারেরর জন্য বিনামূল্যে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন।   বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য যোগাযোগ করুন-০১৭১৯০২৬৭০০, prohaladsaikot@gmail.com

ফুলবাড়ীতে শ্যালিকার বিয়েতে এসে ভারতীয় নাগরিকের মৃত্যু

  • আপডেটের সময় : সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ১৭ টাইম ভিউ

Visits: 0

এমদাদুল হক মিলন, ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম):

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে শ্যালিকার বিয়ে অনুষ্ঠানে এসে দুলাভাই (জামাইবাবু) বিকাশ চন্দ্র সরকার (৪১) নামের এক ভারতীয় নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে। রবিবার সন্ধায় উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নের দক্ষিণ বড়ভিটা গ্রামে এঘটনা ঘটে। গায়ে হলুদের দিনে বিকালে বুকের ব্যাথা অনুভব হলে শ্বশুড়বাড়ির লোকজন দ্রুত ফুলবাড়ী হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ভারতীয় নাগরিককে মৃত ঘোষনা করেছেন মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোছাঃ নাজমিন আক্তার।

দিকে একমাত্র শ্যালিকার গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে দুলাভাইয়ের মৃত্যুর ঘটনায় মুর্হুতেই বিয়ে বাড়ির সব আনন্দ ¤øান ! শুধু বিয়ে বাড়িতে নয় ভারতীয় নাগরিকের মৃত্যুর ঘটনায় বিয়েবাড়িসহ ওই এলাকায় চলছে শোকের মাতন। বাগরুদ্ধ হয়ে পড়েছেন স্ত্রী শেফালী রানী রায় ও একমাত্র শ্যালিকা কাকলী রানী রায়সহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন। নিহত ভারতীয় নাগরিকের বাড়ি ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহার জেলার পুন্ডীবাড়ী থানার দক্ষিণ খাপাইটারী গ্রামে। তিনি ওই এলাকার মিলন চন্দ্র সরকারের ছেলে। ভারতীয় নাগরিকের মরদেহ ফুলবাড়ী হাসপাতাল থেকে শেষ বারের মতো নেয়া হয়েছে মুর্হুতের মধ্যে এলাকাবাসীর ঢল নামে। শ্বশুরবাড়ির লোকজন সোমবার দুপুরে ভারতীয় মেয়ে শেফালী ও তিন বছরের ছেলে বিবেকসহ নাগরিকের মরদেহকে দিদায় জানানো সময় শতশত আত্মীয়-স্বজনসহ এলাকাবাসীকে কাঁদিয়ে ভারতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে লালমনিরহাট জেলার বুড়িমারী ইমিগ্রেশন যান। এ সময় আত্মীয়-স্বজনদের মাঝে এক হৃদয় বিদারক ঘটনার রুপ নেয়। এ সব থেকে হৃদয় বিদারক ঘটনাটি, যখন তিন বছরের ছেলে বিবেক বাবার লাশবাহী গাড়ীতে চড়েন সে তখনো জানে না তার বাবা পৃথিবী ছেড়ে চলে গেছেন। অবুঝ শিশু বিবেক ও অকালে স্বামীকে হারানো স্ত্রী শেফালীকে দেখে উপস্থিত সবার চোখে জল আসে। এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত ভারতীয় নাগরিকের মরদেহ ভারতে পৌঁছেনি বলে জানা গেছে।

নিহত বিকাশ চন্দ্র রায়ের চাচা শ্বশুর ক্ষিতিশ চন্দ্র রায় ও প্রতিবেশি দাদা শ্বশুর কিশোরী চন্দ্র রায় জানান, শ্যালিকার বিয়ে উপলক্ষে গত ১৭ দিন আগে জামাই বিকাশ চন্দ্র সরকার তার স্ত্রী শেফালী রানী রায় (৩৫) ও তিন বছর বয়সী ছেলে বিবেক চন্দ্র সরকারসহ তার শ্বশড় বাড়ীতে আসেন। বিয়ে অনুষ্ঠানে এসে এ ভাবে হঠাৎ পৃথিবী ছেড়ে চলে যাবেন এটা মানতে কষ্ট হচ্ছে। পুরো বিয়ে বাড়ীর আনন্দটা ম্লান হয়ে গেলো। এই দুর্ঘটনার খবরটি সাথে সাথে বর-পক্ষ (নতুন আত্মীয়কে) জানানো হয়েছে। তাই তাদের সম্মতিক্রমে লগ্নমতো সোমবার রাতে বিয়ে অনুষ্ঠান সম্পূর্ণ হবে।

নিহত বিকাশের শ্বশুড় কৃষ্ণ চন্দ্র রায় কান্নাজড়িত কন্ঠে জানান, আমার দুই সন্তান। শেফালী বড়। শেফালী ১০ বছর বয়সে ভারতের পুন্ডীবাড়ী এলাকায় দাদুর (নানা) বাড়ীতে মানুষ হয়েছে। পাঁচ বছর আগে আমার শ্বশুর মেয়ের বিয়েও দিয়েছেন। ছোট মেয়ের বিয়ে ঠিক হওয়ায় মেয়ে- জামাইকে জানিয়ে দিলে ছোট মেয়ের বিয়ের ১৭ দিন আগেই পার্সপোট ভিসা করে আমাদের বাড়ীতে আসে। গায়ের হলদের দিনেই আমার জামাইয়ের মৃত্যু হবে এটা মানতে পারছি না বাহে।

ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ প্রাণকৃষ্ণ দেবনাথ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সকল প্রক্রিয়া শেষে রাতেই হাসপাতাল থেকে ভারতীয় নাগরিকের মরদেহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন নিয়ে যান। সোমবার দুপুরে মরদেহ ভারতের উদ্দেশ্যে রহনা হয়েছেন বলে তিনি জানান।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার সিব্বির আহমেদ জানান, শ্যালিকার বিয়েতে এসে ভারতীয় নাগরিকের মৃত্যুটি দুঃখজনক ও বেদনাদায়ক। সোমবার দুপুরে ভারতীয় নাগরিকের মরদেহ ভারতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে শ্বশুরবাড়ি থেকে বুড়িবাড়ী ইমিগ্রেশনের দিকে রহনা হয়েছেন। বিষয়টি জেলা প্রশাসক স্যারকে জানানো হয়েছে। স্যারের নির্দেশে মরদেহ নিয়ে যাওয়ার সব খরচ বহন করা হবে।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved © 2017 তোলপাড়
Customized BY NewsTheme